হ্যাকারের কবলে মডেল প্রিয়তি

10

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আন্তর্জাতিক মডেল মাকসুদা আক্তার প্রিয়তির স্কাইপি আইডি হ্যাকড হয়েছে। প্রিয়তির কাছে ৩০ হাজার ডলার দাবি করে হ্যাকারদের পক্ষ থেকে টেক্সট পাঠানো হয়েছে। এ নিয়ে চিন্তিত রয়েছেন মিস আর্থ-খ্যাত এ আইরিশ মডেল।

এ প্রসঙ্গে প্রিয়তি বলেন, ”আমার স্কাইপি আইডি হ্যাক করে আমার কাছে ৩০ হাজার ডলার দাবি করা হয়েছে। আমার ভিডিও লিক করার হুমকি দেওয়া হয়েছে। যদিও সেখানে আমার তেমন কোনো
ভিডিও নেই। এর আগে আমার ফেসবুক আইডিও একাধিকবার হ্যাক করার চেষ্টা করা হয়েছে। সব মিলিয়ে আমি মানসিকভাবে বিপর্যস্ত আছি।”

বাংলাদেশ এবং আফ্রিকা থেকে স্কাইপি আইডিটি হ্যাক করা হয়ে থাকতে পারে বলে মনে করছেন প্রিয়তি। তিনি বলেন, ”প্রাথমিকভাবে আমার মনে হয়েছে আফ্রিকা কিংবা বাংলাদেশ থেকে আমার স্কাইপি আইডি হ্যাক করা হয়েছে। বিষয়টি আমাকে আতঙ্কিত করছে। কারণ এরই মধ্যে আমার নামে কয়েকটি ভুয়া ফেসবুক আইডি খোলা হয়েছে। সেখান থেকে আমাকেই আবার রিকোয়েস্ট পাঠানো হচ্ছে।”

বাংলাদেশে জন্ম নেওয়া এ মডেল এখন বিশ্বব্যাপী আলোচিত। সম্প্রতি বিশ্বের অন্যতম ফটোগ্রাফার জন মোড়ানের মডেল হয়ে আলোচিত তিনি। হলিউডের বিখ্যাত চলচ্চিত্র ‘দ্য মামি রিটার্নস’-এর আদলে মডেল হয়েছেন প্রিয়তি। এ ছাড়া আয়ার‌ল্যান্ডের সিনেমায় অভিনয় করছেন তিনি।

Details

হোয়াইট হাউসে আমন্ত্রণ পেলেন প্রিয়াঙ্কা

gl

অস্কারের লাল গালিচায় দ্যুতি ছড়ানোর পর এবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সঙ্গে নৈশভোজ সারা সুযোগ পেলেন ভারতীয় অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।

কদিন বাদেই পিসিকে দেখা যাবে ওবামার সঙ্গে সেলফি তুলতে। হ্যাঁ, অবিশ্বাস্য মনে হলেও ঘটনা সত্যি। এ বছরের হোয়াইট হাউস করেস্পন্ডেন্ট ডিনারে দাওয়াত পেয়েছেন প্রিয়াঙ্কা।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বলছে, ব্র্যাডলি কুপার, জেইন ফন্ডা, লুসি লিউর মতো হলিউড মহারথীদের সঙ্গে এবার মার্কিন রাষ্ট্রপতির বাসভবনে পা রাখবেন প্রিয়াঙ্কা। মার্কিন প্রেসিডেন্টের আয়োজনে করা বার্ষিক গালা অনুষ্ঠানেও অংশ নেবেন তিনি।

এ বছরের হোয়াইট হাউস করেস্পন্ডেন্ট ডিনার হতে যাচ্ছে ওবামার আমলের শেষ ডিনার, এতে সঞ্চালক হিসেবে থাকবেন ‘দ্য নাইটলি শো’র উপস্থাপক ল্যারি উইলমোর।

প্রত্যেক বছর হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকে এই ডিনারের আয়োজন করা হয়। এর মূল উদ্দেশ্য হল তহবিল সংগ্রহ, যা ব্যবহার করা হয় সাংবাদিকতা বৃত্তির জন্য এবং এই পেশার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের স্বীকৃতি প্রদানের কাজে।

প্রেসিডেন্ট এবং ফার্স্ট লেডির সঙ্গে এই ডিনারে অংশ নিয়ে থাকেন সরকারের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা এবং গণমাধ্যম সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।

Details

হেয়ার মাস্ক

7h8g

চুলের যত্নে নিয়ম করে শ্যাম্পু করা ও কন্ডিশনার ব্যবহার অথবা মাঝেমধ্যে তেল দেওয়াই যথেষ্ট নয়।

চুলের বাড়তি পুষ্টির জন্য ‘হেয়ার মাস্ক’ ব্যবহার করাও জরুরি।

তেল, দই, মধু, জুঁইফুল ইত্যাদি সাধারণ উপকরণগুলো চুলের জন্য অত্যন্ত উপকারী। এই ধরনের উপকরণ ব্যবহার করে রূপচর্চাবিষয়ক একটি ওয়েবসাইট অবলম্বনে চুলের মাস্ক তৈরির কিছু পদ্ধতি দেওয়া হল।

জুঁই ফুলের মাস্ক: এই প্যাক তৈরি করতে লাগবে আধা কাপ ক্যাস্টর তেল, আধা কাপ কারিপাতা, আধা কাপ নারিকেল তেল, এক কাপ জুঁইফুল।

সব উপাদান এক সঙ্গে মিশিয়ে একটি পাত্রে নিয়ে হালকা তাপে চুলায় বসাতে হবে। অনবরত নাড়তে থাকুন যেন সব উপাদান মিশে যায়। চুলা থেকে নামিয়ে পাতা ও ফুল ছেঁকে তেল থেকে আলাদা করে নিন। কুসুম গরম অবস্থায় ওই তেল মাথার ত্বকে চুলের গোড়ায় ও পুরো চুলে মালিশ করুন। এরপর একটি তোয়ালে গরম পানিতে ভিজিয়ে পানি চিপে মাথায় পেঁচিয়ে রাখুন ১৫ মিনিট। ভালোভাবে শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন।

নিয়মিত এই তেল ব্যবহারে চুলের আর্দ্রতা বজায় থাকবে ও খুশকি দূর হবে।

ডিপ কন্ডিশনিং মাস্ক: চুলের দৈর্ঘ্য অনুসারে পরিমাণ মতো মেয়োনেইজ নিন এবং অর্ধেক পাকা-অ্যাভকাডো নিন। অ্যাভাকাডোর মাংসল অংশ বের করে ভালোভাবে চামচ দিয়ে চটকে নিতে হবে। এর সঙ্গে মেয়োনেইজ মিশিয়ে চুলে, বিশেষ করে আগার দিকে ভালোভাবে মাখতে হবে। ভেজা ও গরম তোয়ালে দিয়ে পেঁচিয়ে রাখুন চুল। এতে চুল পুষ্টি ভালোভাবে শুষে নেবে। ২০ ‍মিনিট রেখে শ্যাম্পু করে ফেলুন।

অ্যাভাকাডো না পেলে মধু ও লেবুও ব্যবহার করা যেতে পারেন। এই মাস্ক চুল নরম করবে এবং আগা ফাটা সমস্যা রোধ করবে।

Details

হৃদরোগ কি? কি কারনে বুকে ব্যথা হয়? বুকে ব্যথা মানেই হৃদরোগ বা হার্ট অ্যাটাক নয়

হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ ও হার্ট ভালো রাখার উপায় বুকে ব্যথা অনুভূত হলে অনেকেই হৃদরোগের ভয়ে চিন্তিত হয়ে পড়েন। কিন্তু বুকে শুধু হৃৎপিণ্ডই নেই, এখানে রয়েছে ফুসফুস, শ্বাসনালি, খাদ্যনালি, পাঁজরের হাড়-মাংস ইত্যাদি। আর এসবের কারণেও বুকে ব্যথা হতে পারে। তাই বুকে ব্যথা হলেই তা হৃদ্রোগ বলে ধরে নেওয়া ঠিক নয়। পাঁজরের হাড়ের সন্ধিস্থলে প্রদাহ, বুকের মাংসপেশির…

Details

হৃত্বিককে সরিয়ে ‘ব়্যাম্বো’ হলেন টাইগার শ্রফ

বলিউডের গ্রিক দেবতা তিনি। বলিউডের সবচেয়ে আকর্ষণীয় অভিনেতাদের মধ্যে তার নাম প্রথম সারিতে। তিনি হৃতিক রোশন। দক্ষ অভিনয়ের পাশাপাশি তার নাচ বলিউডে এনেছে এক নতুন জোয়ার। হৃতিকের নাচের সঙ্গে পাল্লা দিতে বলিউডে এখন একজনই পারেন। কেউ কেউ তাকে হৃতিকের উত্তরসুরীও বলে থাকেন। জ্যাকিপুত্র টাইগার শ্রফ। ইতোমধ্যেই তার নাচের জোরে বলিউডে বিশেষ জায়গা করে নিয়েছেন। এমনকি…

Details

হৃতিকের সঙ্গে সন্ধি চাইছেন কঙ্গনা!

WE5

বিবাদ যখন চরমে, আলোচনার ঝড়-ছবি ফাঁস, যখন একে একে সংবাদমাধ্যমে উঠে আসছে হৃতিকের সঙ্গে তাঁর প্রেমের নানা গোপন খুঁটিনাটি, ঠিক সেই সময়ে কঙ্গনা রনৌত জানালেন, হৃতিকের সঙ্গে এই বিবাদে সন্ধি চাইছেন তিনি।
আজ বৃহস্পতিবার কঙ্গনা রনৌত জানিয়েছেন, হৃতিকের সঙ্গে তাঁর চলমান বিবাদ-বিষয়ক আর কোনো বিবৃতি দেবেন না তিনি। কঙ্গনা আরও জানিয়েছেন, দুজনের ঘনিষ্ঠ কয়েকজন এই বিবাদ মেটানো, মিটমাট বা আপস-রফার ক্ষেত্রে উদ্যোগ নিয়েছেন। অর্থাৎ হৃতিকের সঙ্গে এই বিবাদ আর বাড়াতে চান না তিনি। সে ক্ষেত্রে একধরনের সন্ধিই চাইছেন কঙ্গনা।
এক বিবৃতিতে কঙ্গনা উল্লেখ করেছেন, ‘যেকোনোভাবেই হোক সবাইকে এটা জানাতে চাই যে আমাদের দুজনের ঘনিষ্ঠ কয়েকজন মানুষ এরই মধ্যে আমাদের (হৃতিক-কঙ্গনা) মধ্যকার চলমান এই বিবাদ নিষ্পত্তির ব্যাপারে কাজ করছেন। সংবাদমাধ্যমের কাছে এই বিবাদ-বিষয়ক আর কোনো বিবৃতি আমরা ভবিষ্যতে দেব না।’
অবশ্য সম্প্রতি হৃতিক-কঙ্গনার ফাঁস হওয়া ছবি প্রসঙ্গে হৃতিক পক্ষকে একহাত নিয়েছেন কঙ্গনার আইনজীবী রিজওয়ান সিদ্দিক। তিনি বলেছেন, ‘ছবি ফটোশপ করা বলতে কী বুঝিয়েছেন তাঁরা? ছবির মানুষটি কি কঙ্গনা বা হৃতিক নন!’
দিন কয়েক আগে ২০১০ সালের এক অনুষ্ঠানে উপস্থিত হৃতিক-কঙ্গনার অন্তরঙ্গ একটি ছবি সংবাদমাধ্যমে তোলপাড় তুলেছিল। এই ছবির বিষয়টিকে নিয়ে রিজওয়ান আরও জানিয়েছেন, হৃতিক যে জানিয়েছেন তিনি কঙ্গনার সঙ্গে সামাজিকভাবে কোনোভাবেই সম্পর্কিত ছিলেন না। এই ছবি সেটা মিথ্যা প্রমাণ করেছে।
যা হোক, সর্বশেষ যে পরিস্থিতি তাতে বোঝা যাচ্ছে বিষয়টাকে আর জটিল না করে কঙ্গনা চাইছেন দ্রুত এর নিষ্পত্তি করতে। পিটিআই।

Details

হৃতিক-কঙ্গনার বাগদান!

বলিউডের তারকা হৃতিক রোশন আর কঙ্গনা রনৌত যখন উকিল নোটিশ দিয়ে লড়ছেন, ঠিক সেই সময়েই এই দুই যুযুধান তারকাকে নিয়ে চমকে যাওয়ার মতো খবর প্রকাশ করল বলিউডের সংবাদমাধ্যম বলিউড লাইফ। সংবাদমাধ্যমটি জানিয়েছে, ২০১৪ সালে নাকি বাগদান হয়েছিল হৃতিক রোশন ও কঙ্গনা রনৌতের! আর এই বাগদানের পুরো বিষয়টিই নাকি হয়েছিল খুব গোপনে! কাউকেই জানানো হয়নি, এমনকি কোনো মিডিয়াতেও তা আসেনি! সম্প্রতি কঙ্গনার ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র এমনটাই দাবি করেছে।
শেষ পর্যন্ত হৃতিক-কঙ্গনার গোপন প্রেমের বিষয়টি আর গোপন রইল না! আর তা যেভাবে জানাজানি হলো—তারকাদ্বয়ের কেউই নিশ্চয়ই এমনটা চাননি। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে, ঘটনা ঘটল তখনই, যখন দুজনে দুজনের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিতে চলেছেন! আর এরই মধ্য দিয়ে উঠে আসছে দুজনের অনেক অজানা গল্প।

কঙ্গনার আইনি নোটিশ থেকে জানা গেছে, সুজানের সঙ্গে বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ থাকার পরেও হৃতিক গোপনে সম্পর্ক রেখেছিলেন কঙ্গনার সঙ্গে! অনেকেই বলছেন তবে কি এই বিষয়টা নিয়েই দুজনের সম্পর্কের টানাটানি শুরু?
এদিকে মুম্বাই মিরর পত্রিকা জানিয়েছে, দুজনের মধ্যে যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল; সেটা কেউ কেউ জানতেন। কিন্তু তাঁরা যে গোপনে বাগদানটাও সেরে ফেলেছিলেন! তা একরকম অজানাই ছিল।

বিষয়টি অজানাই থেকে যেত যদি না কঙ্গনার এক ঘনিষ্ঠ বন্ধু এ বোমাটি ফাটাতেন! তিনি জানিয়েছেন, ২০১৪ সালে নাকি কঙ্গনাকে বিয়ের প্রস্তাব দেন হৃতিক! সেই বন্ধুকে নাকি কঙ্গনাই জানিয়েছিলেন যে সুজানেকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিদায় জানানোর পরই কঙ্গনাকে বিয়ে করার প্রস্তাব দেন হৃতিক। প্রস্তাবটি শুনে যেন আনন্দে শূন্যে ভাসছিলেন কঙ্গনা! তাও কী যে-সে জায়গায়? প্রস্তাবটি নাকি হৃতিক দিয়েছিলেন ‘ভালোবাসার নগর’খ্যাত প্যারিসে!

যা-হোক, হৃতিক-কঙ্গনা সম্পর্কের ছাড়াছাড়ির প্রসঙ্গে কঙ্গনার ঘনিষ্ঠ সূত্রটি জানিয়েছে, ‘ব্যাং ব্যাং’ ছবির দৃশ্যধারণের কাজ থামিয়ে রেখে ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে হৃতিক কঙ্গনার সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন। কঙ্গনা তখন ছুটিতে নিউইয়র্কে। সেখান থেকেই হৃতিকের সঙ্গে ‘ব্যাং ব্যাং’ ছবির সহশিল্পী ক্যাটরিনা কাইফের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার কথা জানতে পারেন তিনি। এ বিষয়ে জানতে চাইলে ক্যাটরিনার সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার বিষয়টি স্বীকার করে হৃতিক জানতে চান, কঙ্গনার সঙ্গে তাঁর বাগদানের বিষয়টি কেউ জেনেছে কি না। আর যখন কঙ্গনা তাঁকে জানান যে তিনি তাঁর পরিবারকে বিষয়টি জানিয়েছেন। প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই হৃতিক তাঁকে জানিয়ে দেন যে আসলে কঙ্গনা তাঁর কথা ভুল বুঝেছেন! এমন কিছুই নাকি তিনি বোঝাতে চাননি!
অবশ্য এ পর্যন্ত বিষয়টা নিয়ে কেবল কঙ্গনার আইনি নোটিশ আর তাঁর ঘনিষ্ঠ সূত্রটির বরাতেই খবর প্রকাশিত হয়েছে। এ বিষয়ে হৃতিকের তরফ থেকে তিনি কিংবা অন্য কেউই এখন পর্যন্ত মুখ খোলেননি।
বলিউড লাইফ অবলম্বনে দেব দুলাল গুহ।

Details

হৃতিক-কঙ্গনার ফাঁস হওয়া ছবি নিয়ে ধুন্ধুমার কাণ্ড

f6

বলিউডের তারকা হৃতিক রোশন আর কঙ্গনা রনৌতের প্রণয় ও বিচ্ছেদ আর এরপর তাঁদের বিবাদ নিয়ে তোলপাড় যেন থামছেই না। এর সঙ্গে সম্প্রতি অনলাইনে প্রকাশিত এই দুজনের একটি অন্তরঙ্গ ছবি যেন আগুনে ঘি ঢেলেছে। অনেকে অবশ্য বলছেন, এ ছবি ফটোশপ করা। সম্প্রতি টাইমস অব ইন্ডিয়া হৃতিক, কঙ্গনা, অর্জুন রামপাল ও নন্দিতা মাহতানির আরও একটি ছবি প্রকাশ করেছে। সে ছবি বলছে অন্য কথা।

একসময় ভালো ‘বন্ধু’ ছিলেন হৃতিক কঙ্গনাহৃতিক কঙ্গনার এই ছবি ২০১০ সালের এক অনুষ্ঠানের। বলিউডের আরেক অভিনেতা অর্জুন রামপাল আয়োজিত সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন হৃতিকের সাবেক স্ত্রী সুজানেও।
অনুষ্ঠানের অনেক ছবিই তোলা হয়েছিল। অনুষ্ঠানের বেশ কয়েকটি গ্রুপ ছবির মধ্যে যে ছবিতে হৃতিক, কঙ্গনা, অর্জুন রামপাল ও নন্দিতা আছেন, সেই ছবিতে কঙ্গনার পোশাকের রং ও নকশা হুবহু ফাঁস হওয়া ছবির সঙ্গে মিলে যায়। আর এই নতুন ছবিটি প্রকাশিত হওয়ার পর থেকেই আগের ফাঁস হওয়া ছবিটি যে ফটোশপ করা বা বানানো, তা নিয়ে তুমুল বিতর্ক চলছে।
অনেকেই বলছেন, এই ফাঁস হওয়া ছবিটি আরেকটি গ্রুপ ছবি থেকে কেটে নেওয়া। আর এরপর বড় করে ফটোশপ করা। ছবির গ্রেন বা রঙের বিন্দুগুলোও স্বাভাবিকের ​চেয়ে অনেক বড়। যাঁরা বলছেন আগের ছবিটি বানানো, তাঁরা এটিকে স্পষ্ট প্রমাণ মানছেন।

ফাঁস হওয়া এই ছবি যে অনুষ্ঠানে তোলা, তারই কোনো গ্রুপ ছবির কেটে নেওয়া অংশ বলেই মনে করছেন অনেকেআর এদিকে প্রকাশিত ছবিগুলো নিয়ে নানা প্রশ্ন সবার মাথায় ঘুরপাক খাচ্ছে। যেসব প্রশ্ন বলিউডের বাতাসে ভাসছে, সে প্রশ্নগুলোর মধ্যে রয়েছে, কঙ্গনা কেন সেই অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন? তিনি আমন্ত্রিত ছিলেন নিশ্চয়ই! হৃতিকের সঙ্গে কঙ্গনার যে গ্রুপ ছবি, তাতে দুজনের দাঁড়ানোর ভঙ্গি অনেক ঘনিষ্ঠ। নিশ্চয়ই এ দুজনের মধ্যে তখন সুসম্পর্ক ছিল। এমনকি হৃতিকের সাবেক স্ত্রী সুজানের সঙ্গেও! অনেকগুলো ছবির মধ্যে হৃতিক কঙ্গনার কোনো আলাদা ছবি কি তোলা হয়েছিল? নাকি এই ছবি গ্রুপ ছবি থেকে নেওয়া!

যা হোক, এসব প্রশ্নের উত্তর যাঁরা দিতে পারবেন, তাঁরা এখন পর্যন্ত নিশ্চুপই আছেন। আর যে দুজন এ বিষয়ে সবচেয়ে ভালো জানেন, সেই হৃতিক আর কঙ্গনা এখন যুযুধান, পরস্পরের বৈরী! কাজেই আগুনের ফুলকি আর ধোঁয়ায় এখনো সব প্রশ্নের উত্তর সবার কাছে ধোঁয়াশাতেই রয়ে গেছে। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

Details

হৃতিক রোশনের মা হতেন রিচা!‌

117

নওয়াজউদ্দিনের আগে হৃতিক রোশনের মা হওয়ার কথা ছিল তাঁর। বয়স ছিল মাত্র ২৫। তাই চরিত্রটা করতে রাজি হননি রিচা চাড্ডা। সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে জানালেন সেই গল্প। কেরিয়ারের তখন শুরু। ‘‌অগ্নিপথ’ ‌ছবিতে হৃতিকের মায়ের চরিত্রে অভিনয়ের প্রস্তাব এসেছিল। পরে জারিনা ওয়াহাব চরিত্রটি করেন। কিন্তু মায়ের চরিত্র রিচার পিছু ছাড়েনি। অনুরাগ কাশ্যপের ‘‌গ্যাংস অফ ওয়াসিপুর’‌ ছবিতে নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকির মায়ের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। ওই ছবিটা যদিও হাতছাড়া করেননি রিচা।

সূত্র: আজকাল

Details

হুমায়ূন স্যার বেঁচে নেই আমি বিশ্বাস করি না : রিয়াজ –

আজ ১৯ জুলাই হুমায়ূন আহমেদের প্রয়াণ দিবস। ২০১২ সালের ১৯ জুলাই বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ১১টায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বাংলা সাহিত্যের এই নক্ষত্র। আকাশচুম্বী জনপ্রিয় এ লেখকের মৃত্যুতে পুরো দেশে শোকের ছায়া নেমে এসেছিল, যা আজও তার লাখো-কোটি ভক্তদের অন্তর সে শোক ধারণ করছে। হুমায়ূন আহমেদ বাংলা গদ্য সাহিত্যের পাশাপাশি দেশের নাটক, চলচ্চিত্রেও…

Details

হার্ট সুস্থ রাখার জন্য চিকিৎসকের ৮টি পরামর্শ!

বিশ্বজুড়ে অকালমৃত্যুর অন্যতম কারণ হলো হৃদ্‌রোগ। চলমান জীবনকে হঠাৎ থামিয়ে দেয় এই রোগ। রোগটি এমন সন্তর্পণে জীবনে প্রবেশ করে যে টেরও পাওয়া যায় না। কিন্তু আপনিই এই হার্টকে সুস্থ রাখতে পারেন। ভালো থাকা আসলে আপনারই হাতে। হার্টকে সুস্থ ও সজীব রাখতে ৮টি অভ্যাস আপনাকে জিতিয়ে দিতে পারে, এমনটাই বলছেন গবেষকেরা। নিজেকে জানুন ব্যস্ত দিনগুলোতে নিজেকে…

Details

হার্ট ভালো রাখার উপায় বা হার্ট সুস্থ রাখার উপায় নিয়ে হার্ট বিশেষজ্ঞ ডাঃ দেবার্ঘ্য ধুয়া হার্টের সমস্যা ও সমাধান নিয়ে পরামর্শ দিয়েছেন

শীত আসছে। এই সময়ে হার্ট অ্যাটাকের আশঙ্কা খানিকটা বেশি থাকে। তবে স্বাস্থ্যকর জীবনযাত্রা, নিয়মিত শরীরচর্চা এবং নিয়মিত চেকআপের মাধ্যমে রোগটিকে দূরে সরিয়ে রাখা যায়। পরামর্শ দিলেন চিকিৎসক দেবার্ঘ্য ধুয়া। প্রশ্ন: হার্ট অ্যাটাক কথাটা শুনলেই আমরা ঘাবড়ে যাই। এটা কতটা বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে? উত্তর: আজকের সময়ে হৃদরোগ একটি অন্যতম সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। হার্ট অ্যাটাক বা…

Details

হাত পায়ের যত্নে রিফ্লেক্সোলজি

uyaeyi

ম্যানিকিউর এবং পেডিকিউরের আধুনিক পদ্ধতি।

আমরা অনেক সময়ই হাত-পায়ের যত্ন নিতে একটু গাফিলতি করি। দেখা যায় মুখটা অনেক সুন্দর তবে হাত পা রুক্ষ, শুষ্ক। অনেকেরই হাতের ত্বকে এক ধরনের কালো ছোপ পড়ে। সাধারণত যারা বাইরে বেশি বের হন; স্কুল, কলেজ, অফিসে যাওয় আসা করেন তাদের এরকম সমস্যা হতে পারে।

একটু সচেতনতা আপনার হাত পা সুন্দর রাখতে পারে। আর এ জন্য করাতে পারেন রিফ্লেক্সোলজি ম্যানিকিউর এবং পেডিকিউর।

এ বিষয়ে পরামর্শ দিচ্ছেন আকাঙ্ক্ষা’স গ্ল্যামার ওয়ার্ল্ড’য়ের কর্ণধার অ্যারোমা থেরাপিস্ট জুলিয়া আজাদ।

দিনের বেলা যখনই বাইরে বের হন হাতে অবশ্যই সান্সক্রিন লোশন লাগিয়ে পাঁচ দশ মিনিট পর বের হন। এতে হাতের ত্বক কালো হয়ে যাওয়া থেকে রক্ষা পাবে।

বাসায় ফিরে ভালো ভাবে হাত মুখ ধুয়ে ময়েশ্চারাইজার বা হ্যান্ড ও বডি লোশন লাগিয়ে নিন। হাত-পা ধুয়ে হাল্কা করে মুছেই সঙ্গে সঙ্গে লোশন লাগাতে ভুলবেন না। এতে আপনার হাত ও পা নরম থাকবে।

সপ্তাহে একদিন বডি স্কার্ব বা বাথ-সল্ট দিয়ে হাত পা ভালো ভাবে মালিশ করতে ভুলবেন না। এরপর বেশি পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। হাল্কা করে শুকিয়ে ময়েশ্চারাইজিং করুন।

রাতের বেলা ভালোভাবে হাত-পা ধুয়ে পেট্রোলিয়াম জেলি অল্প পরিমাণে নিয়ে মালিশ করুন। পাঁচ মিনিট পর ভেজা রুমাল দিয়ে মুছে ফেলুন। এভাবে করলেও আপনার হাত পায়ের ত্বক সুন্দর হবে।

এছাড়া মাসে একবার ভালো কোনো পার্লারে গিয়ে ম্যানিকিউর ও পেডিকিউর করান। ম্যানিকিউর প্যাডিকিউর নানা ধরনের হয়। সমস্যা অনুযায়ী একজন অভিজ্ঞ রূপবিশেষজ্ঞ ঠিক করে দেবেন আপনার জন্য কী ধরনের যত্ন দরকার।

ম্যানিকিউর এবং প্যাডিকিউরের নতুন সংযোজন রিফ্লেক্সোলজিক্যাল ম্যানিকিউর প্যাডিকিউর।

এটা প্রাথমিকভাবে হাত ও পায়ের পাতার নিচে একটি নির্দিষ্ট অংশে টিপে শরীরের নির্দিষ্ট অংশগুলো পরিবর্তন ঘটানোর সদ্ব্যবহার করার থেরাপি।

এটা অ্যারোমা থেরাপির মাধ্যমে নির্দিষ্ট নিয়মে করা হয়। সাধারণত যাদের ত্বক খুব রুক্ষ বা অসুন্দর অথবা পা ফেটে খারাপ অবস্থা তাদের এই ধরনের একটি সিটিংয়ের মাধ্যমে সমস্যা অনেকটা কমে যাবে।

অনেক সময় দেখা যায় নখের রং হলদে বা কালো হয়ে গেছে। তারাও এই থেরাপির মাধ্যমে নখের রং ফিরিয়ে আনতে পারবেন।

সমস্যা যাই হোক এই থেরাপি সমস্যা অনেকাংশে সারিয়ে তুলতে সক্ষম। এ ধরনের একটি পেডিকিউর করতে সময় লাগে এক ঘণ্টা। নখে নখকুনি, পায়ে কড়া, পা ফাটা, নখ কালো বা বিবর্ণ হয়ে যাওয়া সব কিছুই ধীরে ধীরে কমে যাবে।

এতে ব্যবহার করা হয় বিভিন্ন এসেনশিয়াল অয়েল, পেরাফিন ওয়াক্স, বাথ সল্ট, সমস্যা অনুযায়ী ফলের রস। সঙ্গে স্টিমিউলেটিং মালিশের মাধ্যমে এই ধরনের ম্যানিকিওর পেডিকিওর করা হয়।

প্রতীকী মডেল: তাসমিয়া মীম। ছবি: দীপ্ত। কৃতজ্ঞতায়: আকাঙ্ক্ষা’স গ্ল্যামার ওয়ার্ল্ড।

Details

হাত দিয়ে খাওয়ার বিস্ময়কর উপকারিতা

উন্নত বিশ্ব তথা ইউরোপের মানুষ হাত দিয়ে না খেয়ে চামুচ দিয়ে খাবার খান। তবে আফ্রিকা, মধ্য প্রাচ্য এবং এশিয়ার বেশিরভাগ মানুষ ছুরি ও চামচের পরিবর্তে হাত দিয়ে খান। আপনি হয়ত শুনে অবাক হবেন যে, হাত দিয়ে খাওয়ার উপকারিতা অনেক। কারণ, খাওয়া একটি ইন্দ্রিয়গত ও মনোযোগী প্রক্রিয়া। দৃষ্টি, গন্ধ, শব্দ, স্বাদ এবং স্পর্শ এর মত আপনার…

Details